চট্টগ্রামে মার্কিন ৭ম নৌবহরের ঘাঁটি নির্মাণ প্রসঙ্গে জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল (পূর্ব-৩) এর প্রেস বিজ্ঞপ্তি।

মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ হাত গুটাও

চট্টগ্রামে মার্কিন ৭ম নৌবহরের ঘাঁটি নির্মাণ চলবে না

জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল (পূর্ব-৩) সভাপতি অ্যাডঃ ভুলন ভৌমিক ও সদস্যসচিব অ্যাডঃ আমীর আব্বাস এক যুক্ত বিবৃতিতে বঙ্গোপসাগরে মার্কিন ৭ম নৌবহরের উপস্থিতি ও ঘাঁটি নির্মাণের বিরোধিতা করে উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। নেতৃবৃন্দ বলেন, টাইমস অব ইন্ডিয়ার বরাত দিয়ে প্রকাশিত সংবাদের ব্যাখ্যা সরকারকে দিতে হবে। কারণ বাংলাদেশের জল বা স্থলে মার্কিন সামরিক উপস্থিতি জনগণের নিরাপত্তার জন্য মারাত্মক হুমকি। বাংলাদেশকে ব্যবহার করে অন্য দেশে সামরিক বা গোয়েন্দা তৎপরতা চালানোর মার্কিনী পরিকল্পনা দীর্ঘদিনের। এটা সম্পুর্নই জনগণের নিরাপত্তা বিরোধী। এছাড়া এখানকার জনগণের গণতান্ত্রিক সংগ্রাম দমনের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী বাংলাদেশের নিরাপত্তা বাহিনীকে গোপনে গত দু’দশক ধরে প্রশিক্ষন দিয়ে আসছে। যার প্রমান ইতোমধ্যে পুলিশ ও র‍্যাবের ক্রসফায়ার, গুম-হত্যার মাধ্যমে দেখা যাচ্ছে। নেতৃবৃন্দ বলেন, বঙ্গোপসাগরে মার্কিন উপস্থিতির লক্ষ্যে আওয়ামী সরকার ইতোমধ্যে কক্সবাজার বিমান বন্দর সম্প্রসারণের উদ্যোগ নিয়েছে। সম্প্রতি মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারী ক্লিনটন বাংলাদেশ সফর করেছেন। সরকার গোপনে কোন চুক্তি করেছে কিনা যার ফলে মার্কিন সমরিক ৭ম নৌবহর চট্টগ্রামে আসছে—এ ব্যাপারে জনগণ অন্ধকারেই আছে। সরকার কে এর স্পষ্ট ব্যাখ্যা দিতে হবে। সবশেষে নেতৃবৃন্দ, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের শাসকশ্রেণীর যে কোন ধরণের তৎপরতাকে রুখে দেবার আহ্বান জানান জনগণের প্রতি।

জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল (পূর্ব-৩)

৬৬, জামালখান রোড, চট্টগ্রাম।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: